MBA চা ওয়ালা নামে সাড়া ফেলেছে তরুণ দুই উদ্যোক্তার তন্দুরি চায়ের স্টল

শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ ০০:২৪


:: মো শহিদুল ইসলাম, শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি ::

যশোরের বেনাপোলে ইতিমধ্যেই সাড়া পড়েছে MBA চা ওয়ালা নামের এই তন্দুরি চায়ের স্টলটি।
চায়ের দোকানের এমন উদ্ভাবনী নামের কারণেই মূলত বেনাপোলে সর্বস্তরের মানুষের মাঝে সাড়া জেগেছে।

চায়ের স্টলটিতে গিয়ে জানতে পারি বেনাপোলের দুই তরুণের উদ্যোগে এই চায়ের স্টলটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বেনাপোলের দুই উদ্যোক্তা মো রাশেদুজ্জামান রয়েল এবং মো আশিকুজ্জামান এ্যানি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর(MBA) ডিগ্রি গ্রহণ করার পর তারা এই উদ্যোগ গ্রহন করেন।

বৃহস্পতিবার ১৮ নভেম্বর সন্ধ্যায় বেনাপোল বাজারস্থ পুকুরপাড় জামে-মসজিদ সংলগ্ন এ "তন্দুরী চা" এর দোকানে গিয়ে এর কৌতুহলটা জানতে পারলাম।  উদ্যোক্তাদের মধ্যে মো রাশেদুজ্জামানের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে এম বি এ পাশ এক মেয়ে চাকরির পিছনে ঘুরে ঘুরে অবশেষে একটি তন্দুরি চায়ের স্টল প্রতিস্থাপন করার পর খুব দ্রুতই দেশব্যাপী সাড়া পড়ে যায় সেখান থেকেই বিভিন্ন দোকানে তন্দুরি চা বিক্রি শুরু হয়।

চা তৈরীর প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "তন্দুরি চা" তৈরি করতে হলে ফাঁকা মাটির কাপ কয়লায় তাওয়ার মধ্যে দিয়ে পোড়ানোর পর অর্ধেক প্রস্তুত করা  চা ওই  পোড়া কাপের মধ্যে ঢেলে দিলেই টকবক করে ফুটতে ফুটতে তৈরি হয়ে যায় তন্দুরি চা। তন্দুরি চায়ের এই আইডিয়া ইতিমধ্যেই সোশাল মিডিয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠায় এই আইডিয়াটা গ্রহণ করি এবং  বিখ্যাত "তন্দুরী চা" এর স্বাদ অত্র এলাকার মানুষের মাঝে পৌছে দিতে আমরা আমাদের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। "আশা করি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত "তন্দুরী চা" আমাদের দেশে বেনাপোল সহ দেশব্যাপী ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাবে বলে আমি মনে করি"।

পড়াশোনা শেষ করে সংকটাপন্ন চাকরির বাজারে নিজেদের মূল্যবান সময় ব্যয় না করে তারা নিজেদেরকে নিয়োজিত করেছেন সেবামূলক এই ব্যবসায়। চাকরির পরাধীনতার কাছ থেকে নিজেদেরকে সরিয়ে রেখে নতুন পরিচয়ে গড়ে তুলতে তাদের তাদের নিরলস পরিশ্রম তাদেরকে সাফল্যের দারপ্রান্তে পৌঁছে দেবে বলে আশাবাদী তারা।

এমএসি/আরএইচ