হারিয়ে যাচ্ছে কলাপাতায় অতিথি আপ্যায়ন

রবিবার ২০ নভেম্বর ২০২২ ১৯:৪৬


রায়গঞ্জ(সিরাজগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ
গ্রাম বাংলায় এক সময় বিয়েবাড়ি কিংবা বড় কোনো আয়োজনে অতিথিদের কলা পাতায় খাবার পরিবেশন করা হতো। কিন্তু সময়ের পথ পরিক্রমায় আধুনিকতার ছোঁয়ায় কলা পাতায় খাবার পরিবেশন যেন হারিয়ে গেছে।
রায়গঞ্জ উপজেলা সদর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট এলাকার শেখ পাড়ায় সংবাদ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে সেখানে গিয়ে এক শিক্ষা সফর অনুষ্ঠানে শিক্ষক শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যম কর্মীদের কলা পাতায় খাবার পরিবেশন করতে দেখা গেলো।
শিক্ষক শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যম কর্মীদের সারিবদ্ধভাবে মাটিতে চট বিছিয়ে কলা পাতায় খাবার পরিবেশন করছে শিক্ষা সফর আয়োজন করা সিরাজগঞ্জের স্মার্ট ট্যুরিজম নামে একটি সংগঠনের সদস্যরা আর এ দৃশ্য এখন আর চোখেই পড়ে না।
সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার পর্বত আরোহী, ৩৪৫টি বিরল প্রজাতির বৃক্ষ সংরক্ষণকারী ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার প্রাপ্ত মাহবুব পলাশের বাড়িতে আয়োজিত শিক্ষা সফরে  সকাল থেকে শিক্ষক শিক্ষার্থী ও জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা গণমাধ্যম কর্মীদের খাবার পরিবেশন করা হচ্ছে কলার পাতায়।
এ সময় কথা হয় স্মার্ট ট্যুরিজমের শিক্ষা সফরে আসা এক শিক্ষার্থীর  সঙ্গে। তিনি বলেন,শিক্ষা সফরে এসে আমার খুব ভালো লাগছে। বহু বছর পর কলা পাতায় খাবার খেলাম। এখন যা আর গ্রামগঞ্জে চোখে পড়ে না। এই সফরে না আসলে আনন্দটা উপভোগ করতে পারতাম না।
পর্বত আরোহী ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার প্রাপ্ত মাহবুব পলাশ বলেন, আমি আগেই স্মার্ট ট্যিুরিজমের শিক্ষা সফরে আসা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের  জানিয়ে ছিলাম কলা পাতায় আপ্যায়ন করবো। হারিয়ে যাওয়ার পথে এই কলাপাতায় আপ্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা আমার সংরক্ষণে থাকা ৩৪৫টি বিরল প্রজাতির বৃক্ষের বাগান দেখে প্রকৃতি সম্পর্কে জানতে পারেবে।
গণমাধ্যম কর্মী আব্দুস ছালাম,লিখন আহম্মেদ ও সুরঞ্জিত সরকার বলেন , আমরা মাহবুব পলাশের সংগ্রহে থাকা ৩৪৫টি বিরল প্রজাতির বৃক্ষ দেখতে শিক্ষা সফরে এসেছেন একটি সংগঠন এই আয়োজনে মাহবুব পলাশের নিমন্ত্রনে হাজির হই । ব্যস্ততার কারণে বেশিক্ষণ থাকতে পারিনি। তবে বহু বছর পর কলা পাতায় অতিথি আপ্যায়ন আমাদেরও ভালো লেগেছে। এখন তো এ বিষয়টি চোখেই পড়ে না।

এমএসি/আরএইচ